ত্বকের রঙ বুঝে মেকআপ করার সঠিক নিয়ম

Ad Blocker Detected

Our website is made possible by displaying online advertisements to our visitors. Please consider supporting us by disabling your ad blocker.

Doing Makeup

আধুনিক রূপসচেতন মেয়েরা এখন মেকআপের পিছনে প্রচুর সময় এবং চিন্তাভাবনা খরচ করে। তবে সেই চিন্তার মাঝে গায়ের রঙটাকে অবশ্যই প্রাধান্য দিতে হবে। কোন কমপ্লেকশনে কেমন মেকআপ ভাললাগে তা জানা জরুরি। এক্ষেত্রে ফর্সা বা কালোর মধ্যে কমবেশি নির্ভুলভাবে পরিমাপের কোনো মাপকাঠি নেই। তবে বেশিরভাগ মানুষের গায়ের রঙ কালো আর ফর্সার মাঝামাঝি। তাই এখানে শ্যামলা এবং ফর্সা এই দুই ধরনের ত্বকের রঙের জন্য উপযুক্ত মেকআপ সম্পর্কে বলা হল।

গায়ে রঙ কতটা চাপা বা ফর্সা সেই বিচারে এই টিপস্ কাজে লাগাবেন। তবে দুটো কথা সব সময় মনে রাখা দরকার। প্রথমত, সবচেয়ে ভাল মেকআপ সেটাই, যা দেখে মেকআপ বলে মনে হয় না। দ্বিতীয়ত, গায়ের রঙ যেমনই হোক না কেন, অনেক মেকআপ করে সেটাকে অন্যরকম দেখাবার চেষ্টা করবেন না। তাতে আরও খারাপ লাগবে। ত্বক এবং সাজ, এই দু’টো ভাল হলে আপনাকে দেখতে ভাল লাগবেই।

শ্যামলা রঙ –

  • শ্যামলা ত্বকে মেকআপ করার ক্ষেত্রে এমন ফাউন্ডেশন বাছুন যেটা তেলতেলে নয়। ওয়াটার-বেস্ড ফাউন্ডেশন ব্যবহার করাই ভাল। কনসিলার ব্যবহার করলেও ত্বক দেখতে সুন্দর লাগে। সেক্ষেত্রে ফাউন্ডেশনের শেড যেন গায়ের রঙের চেয়ে বেশি হালকা না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। শেডটা গায়ের রংয়ের সঙ্গে যত মিলে যায় ততই ভাল লাগবে।
  • ব্লাশার ব্যবহার করার সময় কোরাল-রোজ ইত্যাদি শেড বেছে নিতে পারেন। গায়ের রঙ বেশি চাপা হলে সকালের দিকে ডার্ক রোজ পিঙ্ক আর রাতের দিকে ব্রোঞ্জ বা প্লাগ শেডের ব্লাশার ব্যবহার করুন। সন্ধ্যাবেলা কোনো পার্টিতে যাবার আগে ব্লাশারে হালকা করে, ছুঁয়ে নিতে পারেন গোল্ড শেড।
  • চোখের মেকআপের জন্য বেছে নিন ব্লু বা পার্পলের কোনো ডার্ক শেড। গাঢ় মেটালিক শেডও ভাল লাগবে। আইলাইনার এবং মাসকারা দু’টোই কালো হলে ফুটে উঠবে। আইশ্যাডো ব্যবহার করতে চাইলে সোনালী আইশ্যাডো ঠিক মাত্রায় ব্যবহার করতে পারেন।
  • যেকোনো গায়ের রঙে লিপস্টিকের একটা মানানসই শেড বেছে নেয়া জরুরি। গায়ের রঙ চাপা হলে একটু চাপা শেডের ম্যাট ফিনিশ লিপস্টিক বেশি ভাল লাগে। ব্ল্যাকবেরি, ক্যারামেল, পার্পল এইসব শেড থেকে আপনার পছন্দমত একটা শেড বেছে নিন। লিপস্টিকের সঙ্গে ম্যাচ করে লিপলাইনার লাগান। ঠোঁট কালো হলে, লিপস্টিক লাগানোর আগে ঠোঁটে অল্প করে ফাউন্ডেশন আর পাউডার লাগাতে পারেন।

ফর্সা রঙ –

ফর্সা রঙের অধিকারীদের গাঢ় মেকআপে আকর্ষক লাগে না। তাই এমনভাবে মেকআপ লাগান যেন একটা স্বাভাবিক লুক তৈরি হয়। তাতেই আপনাকে বেশি আকর্ষণীয় লাগবে।

  •  মেকআপ লাগানোর আগে মুখে ময়শ্চারাইজার মেখে নিলে ত্বক থাকবে সারাদিন ফ্রেশ। তারপর দরকার মত কনসিলার লাগান।
  • গায়ের রঙয়ের চেয়ে একটু হালকা শেডের ফাউন্ডেশন ব্যবহার করুন। ফাউন্ডেশন ব্যবহার করতে না চাইলে বিকল্প হিসেবে টিমেটড ময়শ্চারাইজার ব্যবহার করতে পারেন।
  • আপনার গায়ের রঙ যদি একটু বেশি ফর্সা হয় তাহলে হালকা পিঙ্ক শেডের কোনো ক্রিম ব্লাশ ব্যবহার করুন। ব্রোনজার ব্যবহার করতে চাইলে সেটা খুব হালকা করে কপালে গালে আর নাকের উপর বুলিয়ে নিন।
  • ন্যাচারাল লুক চাইলে চোখের মেকআপে বেশি শাইন বা গ্লিটার এড়িয়ে চলুন। কালো মাসকারা ব্যবহার করলে ফরসা ত্বকের সঙ্গে বেশি কনস্ট্রাস্ট মনে হতে পারে। এক্ষেত্রে ব্রাউন শেডের মাসকারা ব্যবহার করতে পারেন। মেটালিক আইশ্যাডো বা আইশ্যাডোর কোনো প্যাস্টেল শেড অথবা গোল্ডেন শিমার সবকিছুই ভাল লাগবে।
  • ফর্সা ত্বকের ঠোঁটে লাল বা গোলাপী শেড ব্যবহার করতে বাধা নেই। তবে লাল, গোলাপী বা মভ রঙের কোনো নরম শেডের লিপস্টিকের সঙ্গে গ্লস লাগান ফরসা ত্বকে উজ্জ্বল লাল রঙের লিপস্টিক একটু চোখে লাগে। কিন্তু ঠোঁটে গ্লস বা শিমার ব্যবহার করলে সুন্দর লাগে।

ঠিকঠাক মেকআপ করলে যেকোনো কমপ্লেকশনেই সৌন্দর্য ফুটে ওঠে।

 

Facebook Comments

Leave a Reply